লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১৭ মে ১৯৮৭
গল্প/কবিতা: ৫টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

২৫

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftমুক্তির চেতনা (মার্চ ২০১২)

৭১-এর দেনা-পাওনা
মুক্তির চেতনা

সংখ্যা

মোট ভোট ২৫

জহির উদ্দিন মোহাম্মেদ babar

comment ১৯  favorite ১  import_contacts ১,৩১০
ওগো জননী তোমার কান্নার ধ্বনি
শুনিনি আমি তখন।
আমি দেখিনি মাগো তোমার ছেলের
বুকফাটা রক্ত রোদন।

আমি বলিনি তখন যুদ্ধে যাব,
বলিনি রক্ত নেব।
তোমার মুখপানে চেয়ে বলতে পারিনি
একদিন বুঝিয়ে দেব।

মাগো শত্রুরা যেদিন কেড়ে নিল তোমার
পিতৃভূমি, বাটি।
তোমার কান্না শুনে কেঁদেছিল সেদিন
বাংলাদেশের মাটি।

আমি কাঁদতে পারিনি তোমার জন্য
ফেলিনি চোখের জল।
অাঁখিজলে ভেসে গেল সেদিন
একলা তোমার অাঁচল।

আমি দেখিনি যামিনী কিভাবে কেটেছিল
দীর্ঘ নয়টা মাস।
আমি দেখিনি শহীদের আত্মাহুতি
তোমার দীর্ঘ শ্বাস।

আমি দেখেছি শহীদ পত্নীর
সমুদ্র সমেত চোখ।
অাঁখিজল টলমল, খুঁজিছে আজও
হাড়ানো আনন্দলোক।


আমি দেখেছি শহীদ মুক্তিযোদ্ধার
অন্ন নাহি জোটে।
বিধবা নারীর ধন-সম্পদ
লোটেরা কেমনি লুটে।

আমি দেখেছি রাজনীতিতে
পৃথ্বীরাজের লড়াই
আগুন বিনা গরম হতে
রাজনীতির লাল কড়াই।

আমি দেখেছি অবুঝ শিশুর
টুকরো টুকরো লাশ।
সন্ত্রাসীদের অবাদচরণ
বাঁচা নাভীশ্বাস।

আমি দেখেছি দেশের শত্রু, জাতির শত্রু
মুখোশ পড়ে ঘুরে।
দিনের আলোয় জননেতা
রাতে টনক নড়ে।

চিংড়ি পোকার মত ওড়া
নির্লজ্জ এক সর্দার
জনগণের কাটগড়ায়
কেউ পাবেনা পার।

ওড়া কাপুরুষ, ওড়া নরপশু
ওদের হবে পতন।
ওদের বিচার করব মোরা
এই করেছি পণ।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement