স্বাধীনতা তুমি আমায় করেছ মুক্ত দিয়েছ বাক স্বাধীনতা, তাইতো বলি গণতন্ত্রের কথা, করি গণতন্ত্রের চর্চা।

অধুনায় গণতন্ত্রের ধারক বাহক বলে পরিচিত যারা, যে দেশগুলোকে বলি গণতন্ত্রের সূতিকাগার; আসলে গণতন্ত্র কি তার সঠিক সংজ্ঞা কী জানে তারা? মূহুর্তেই কেড়ে নেয় অনেক অমূল্য জীবন, হয়তো বা নারী সম্ভ্রমও। যা কি না রজত শুভ্র কিরীটের মত, না কেড়ে নেওয়াতেই করে শোভা বর্ধন।

আমার প্রশ্ন করতে ইচ্ছে করে, "আসলে স্বাধীন কে? হন্তা কারী না শোষিত? কুটিল না সুশীল?"

স্বাধীন দেশের অধিবাসী কী পারে মান সম্ভ্রম নিয়ে পথ চলতে? গায়ের ওড়না, মুখের উজ্জ্বল রূপে অহংকারী করে তুলতে?

স্বাধীনতা তুমি কি দিয়েছ? যা দিয়েছ নাও নি কী ঢের বেশী? তাইতো মা বোনের নামের আগে ব্যবহার হয় নষ্টা, বেশ্যা, ধর্ষিতা ও পাকিদের শয্যা সঙ্গিনী। মুখে না হয় ঢাকনা নেই তাই বলে কী লাগাম থাকতে মানা?

শত সহস্র শ্রদ্ধা তোমাদের, তোমরা না হলে তেমন জন্ম কী হতো আমাদের?

এমন স্বাধীনতা কী কাম্য? ঢের ভাল হতো কুটিল স্বার্থান্বেষী মানুষ যদি এই বাংলায় না জন্মাতো?