বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২০ মে ১৯৮৫
গল্প/কবিতা: ৩টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

গল্প - স্বপ্ন (জানুয়ারী ২০১৮)

মোট ভোট স্বপ্ন

উম্মে হাবিবা
comment ৪  favorite ১  import_contacts ১৬৯
কয়েক দিন ধরে সিরাজের শরীর টা ভাল যাচ্ছেনা। সাথে মনটাও ভাল নেই। পড়তে বসতে ইচ্ছে করে না, সবকিছুতে বিরক্তি। অজানা কারণে প্রিয় কাজগুলো অপ্রিয় হয়ে গেছে।
“ কিরে সিরাজ, কলেজে যাবি না?” মায়ের জিজ্ঞাসা।
“যাব।‘’
“কখন? সময় হয়ে এল ত----“
নিশ্চুপ সিরাজ কোন প্রত্যুত্তর দেয় না।
সময় গড়িয়ে যায়। বিছানাতে পরে থাকে খাবারের থালা। - খেতেও মন চায় না তার।
“ কি ব্যাপার ভাবি, আপনার ছেলের পড়াশোনা কেমন চলছে? কলেজ নেই আজ?”
“ এই ত সামান্য জ্বর এসেছে।“ --- মিথ্যা বলে পাশ কাটান মিসেস জাহান।
ধীরে ধীরে সবাই জানতে শুরু করল— এককালের তুখোড় মেধাবী সিরাজ , জনাব রফিক এবং মিসেস জাহানের একমাত্র সন্তান-মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছে।
##
“আস সালামু আলাইকুম , স্যার।“
“ওয়ালাইকুম আস সালাম। বসুন।“
ডাক্তার আলমের চেম্বার এ প্রবেশ করলেন মিসেস জাহান এবং জনাব রফিক সাহেব।
“দেখুন, ডিপ্রেশন এর কারনে আপনার সন্তান নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছে নিজের মাঝে। যেহেতু একটা অ্যাটাক হয়ে গেছে ধীরে ধীরে এটা কাটাতে হবে। ও কে নিয়ে বেড়িয়ে আসুন না কিছুদিন কোথাও থেকে।“
“ডাক্তার, সিরাজ ভাল হবে তো ?” –মিসেস জাহানের উৎকণ্ঠ জিজ্ঞাসা।
“ঘাবড়াবেন না। আমি ঔষধ লিখে দিচ্ছি ।পর্যাপ্ত পরিমাণ পুষ্টিকর খাবার, সময়মত ঔষধ এবং আপনাদের সাপোর্ট এ ও ভাল হয়ে যাবে ইনশা আল্লাহ। তবে, সময় লাগবে।“
##
ধীরে ধীরে এগিয়ে যায় সময়ের কাঁটা । দিন গড়িয়ে মাস, পেরিয়ে বছর… জনাব সিরাজ উল ইসলাম আজ একজন দক্ষ চিকিৎসক । মনো রোগ বিশেষজ্ঞ তিনি । নিজের গড়া চিকিৎসা কেন্দ্র তাঁর ।
কোন ভুল নেই তাঁর পরিচালনায় ।
“ সাফল্য অর্জনের প্রথম পদক্ষেপ হল দায়িত্ব গ্রহণের প্রস্তুতি। সফল হতে হলে দৃঢ় আত্মবিশ্বাস থাকতে হবে। পরিশ্রম , সততা , লেগে থাকা এই গুণগুলো আয়ত্ত করতে হবে। “ নিজ ছাত্র দের প্রতি বলে চলেন তিনি ।সবার প্রিয় শিক্ষক তিনি । ##

সহমর্মিতার একটি সেশান ।
“ স্যার, আমার কিছু ভাল লাগেনা। কেন আমি অতীতে এই ভুল গুলো করলাম? “
“ কিছুটা বিশদ করুন, জামিল সাহেব।“
“ আমি সবসময় চেয়েছি সবার ভাল করতে, কখনো কাউকে দুঃখ না দিতে। তারপরও আমার অতীত ভুলে ভরা । “
সেশান এগিয়ে চলে। জনাব সিরাজ ব্যাখ্যা করে চলেন কেন আদৌ অতীত ভুলে ভরা নয়, পরম মমতায় তিনি জামিল সাহেবের কাউন্সেলইং করেন। দীর্ঘ মেয়াদী এই চিকিৎসায় একাগ্রতা জরুরী । তাতে কোন ত্রুটি নেই তাঁর …
##
বিকেলের লালচে আলোয় বারান্দায় এক কাপ ধূমায়িত চা হাতে সিরাজ সাহেব । ছুটির দিনের শেষ বিকেলের আলোয় মোহনীয় এক পরিবেশ।
“ রাব্বানা ইন্নাকা জামিউন নাসে লিয়াওমিল লা রায়বা ফিহে, ইন্নাল লাহা লা উখলিফুল মিয়াআদ… “ স্টেরিও তে বেজে চলে আল কুরআন … আহ! হৃদয় সিক্ত হয়ে যায় … ফেলে আসা নিজের অতীত কোন অনুতাপ তৈরি করেনা… সপ্নের পথে হাঁটতে হাঁটতে জীবন হয়ে যায় স্বপ্নিল …
ধন্যবাদ মহা প্রভু! কৃতজ্ঞতায় চোখের পাতা ভারী হয়ে আসে তাঁর …


advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন