লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২১ সেপ্টেম্বর ১৯৮১
গল্প/কবিতা: ১০টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

৩৬

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftবর্ষা (আগস্ট ২০১১)

নাম দিয়েছি বৃষ্টি
বর্ষা

সংখ্যা

মোট ভোট ৩৬

অমৃত অন্তক

comment ২৮  favorite ৩  import_contacts ১,০২২
তোমার নাম দিয়েছি বৃষ্টি,
নাম দিয়েছি কষ্ট!

সেদিন বাতাস থেমে ছিল,
মেঘের গর্জণ ছিলনা।
শুধু শব্দ ছিল ঝিরিঝিরি,
আলো ছিল-আলো আধাঁরি।
মাঝে মধ্যে পাতাগুলি কাপঁছিল,
এক পাতার জল নিচের পাতায়।

কবির উপযুক্ত সময়,
শিল্পির শিল্প বিকশিত।
ব্যাঙের বসন্ত,
নদীর যৌবন।
অলসের ঘুম,
কবিতার চুলবাধাঁ।
প্রেমিকার হাতে হাত,
উষ্ণ বাতাস,
আমার মন মানেনা-রবীর গান।
ডোবার স্থির জল,
বৃষ্টির আল্পনা।
শুণ্যপথে অসীম শুন্যতা।


সেদিন হাতের মাঝে হাতখানি মোর শুন্য হল।
বিস্তৃত প্রান্তরে একজনই বিহঙ্গ
বড় একা।
নিঃস্তব্দ নিঃশব্দ চারিধার,
অসীম শুন্যতা।
দেখেছি, শুধুই দেখেছি আমি-
এই গুমরে কাদাঁ,
এই নিঃস্তব্দতার মাঝে এক ব্যস্ত কোলাহল,
অন্তরে, গভীরে।

দেখেছি গাছের ডালে একাকী কাঁক,
এক পায়ে দারিয়ে,
ভিজে থব থব।
হঠাৎ হঠাৎ আর্তচিৎকার- কাঁ, কাঁ।

দেখেছি ঘরহারা যাযাবর,
ঠাঁই খোজাঁর ব্যস্ত কুহেলিকা।
দেখেছি পথশিশু,
বন্যেরা বনে সুন্দর;
মায়ের ব্যাথাতুর দৃষ্টি।
বর্ষারে! ভরষা কই!

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement