পৃথিবীতে আমি একজন
আমি একজন মানুষ।
আমি সবার মতই
সবার মত জীবন আছে আমারও।
সবাই খায়, আমিও খাই।
সবাই ঘুমায়, আমিও ঘুমাই।
সবাই হাসে, আমি কাঁদি।

সবার যা আছে
আমারও আছে তা।
কিন্তু হায়! আমি ভুলে গেছি
আমারত একটা জিনিস নেই।
নেই যা, তা আমার
সবচেয়ে আপন, পরম প্রিয়
কি তা, বলব?
সে আমার মা।

আমার মা নেই।
এই নশ্বর পৃথিবী ছেড়ে
সবাইকে ছেড়ে
আমাকে ছেড়ে
পাড়ি জমিয়েছেন
অনন্ত জীবনের পথে।
ওগো মা, তুমি আমাকে
রেখে গেলে কার কাছে?

কে আমাকে আদর দেবে?
কে আমাকে স্নেহ দেব?
কে আমাকে করবে আশীর্বাদ?
কেউ নেই, কেউ নেই।
কারন, মা তো একটাই হয়।
মায়ের ছাড়া অন্য কারও মুখে
আমি খুজে পাই না।

মা তুমি কেন গেলে
আমাকে একা রেখে?
কেনই বা তোমার পূর্বে
আমি গেলাম না?
সেকি আমার দুর্ভাগ্য?
হায়বে অভাগার ভাগ্য।
পৃথিবীর সকল সুখী মানুষদের
আমি বলব উচ্চস্বরে
দেখ, দেখ তোমরা
এক অভাগকে, এক এতীমকে।
যার মা তাকে ছেড়ে
চলে গেছে অজানার পথে।

যার মা নেই তার সব বৃথা।
মা নেই তো কিছুই নেই।
হে পৃথিবীর সুখী মানুষেরা
হাসো তোমরা দেখে আমাকে
এক অভাগকে, এক এতীমকে
যার কাছে মার স্নেহ
মার আদর, মার আশীর্বাদ
সবই অবিশ্বাস্য, সবই কল্পনা।