শাপিত রাত কবিতাটিতে ঝড়ের রাতকে অভিশপ্ত বলে আখ্যায়িত করা হয়ে হয়েছে। যেই ঝড় মন্দির,মসজিদ,গীর্জা কিছুই অপেক্ষা করে না। তুলে ধরা হয়েছে ঝড়ের কিছু ধংসলীলা।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৫ ফেব্রুয়ারী ১৯৯৮
গল্প/কবিতা: ৬টি

সমন্বিত স্কোর

২.৮৩

বিচারক স্কোরঃ ১.৬৩ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.২ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - ঝড় (এপ্রিল ২০১৯)

শাপিত রাত
ঝড়

সংখ্যা

মোট ভোট প্রাপ্ত পয়েন্ট ২.৮৩

বাসু দেব নাথ

comment ৯  favorite ০  import_contacts ২৩১
ঝড়ের রাতে মনে হয়,
কেয়ামত বুঝি এসেছে বোধই।
সেই এক ঝড়ের রাত,
প্রকৃতি যে হল কুপোকাত।
হুড়মুড় হুঙ্কার করে
টিনের চালে নারিকেল পড়ে।
মন্দির, মসজিদ রেহাই নাই
গীর্জা ঘরের স্তম্ভ কোথায়?
বিদ্যুৎ খুঁটি উপড়ে গেছে,
আমের মুকুল ঝরে পড়েছে।
শিল,কড়ই ঝাপিয়ে পড়েছে,
পথচারী দুটো নিহত হয়েছে।
গোয়াল ঘরের শাবলী-বাছুর,
এদিক-ওদিক ছুটে চলেছে।
তন্দ্রা ঘোরে মন্টু মিয়া
মাটির গুদামে চাপা পড়েছে।
সাগরের সাথে সন্ধি করেছে,
বিশাল বড় ঘুনন তুলেছে।
ঘূৃৃর্নিঝড়ে চূর্ন করেছে
হাজারো মানুষের প্রাণ কেড়েছে।
খাপ্পা ঝড়ের, খাস রুপটি
যে দেখেছে ভাই।
অবিস্মরনীয় হবে সেই রাতটি,
দেখতে না চাই আর।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement