একটা মেয়ে। তার জীবনের সবচেয়ে কাঙ্ক্ষিত এক রাতে বসে অাছে। কি হবে একটুপর? সুখ? যন্ত্রণা? ভয়ংকর কোন বিপদ? নাকি অসহায় অাত্মসমর্পণ? সে প্রচন্ড ভয়ে অাছে। অাসুন তার ভয়টা অনুভবের চেষ্টা করি।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৭ মে ১৯৮৫
গল্প/কবিতা: ৬টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - ভয় (ডিসেম্বর ২০১৮)

লজ্জা ভাঙার রাত
ভয়

সংখ্যা

অাহাদ অাদনান

comment ২  favorite ০  import_contacts ৫৪
মৃদু গুঞ্জন তুমি কোলাহল ভেবে নিজেকে লুকাও মেয়ে,
ভয়, সংকোচ কিংবা লজ্জা, বিলোপপূর্ব অাসে ধেয়ে,
বাইরে দেখো উথালপাতাল ঝড়, বজ্রপাত একরোখা,
ভয়ে জড়িয়ে ধর, অভয় দিই, 'অাছিতো অামি, বোকা'।

অভূতপূর্ব অালিঙ্গনে জাগে স্নায়ু, খোঁজে প্রশ্রয়,
ভেজা লাল দুটি পাঁপড়িতে এই ঠোঁট নেয় অাশ্রয়।
শার্টের কলার খামচে ধর, এখনও কি কোন ভয়,
গোয়েন্দার হাত চষে বেড়ায় অদেখা রাজ্য জয়।

তখন হাত বাড়ালেই ছুঁতে পাবে উষ্ণ দীর্ঘশ্বাস,
অামার অন্তর দেহ খুঁজে ফেরে তোমার অন্তর-বাস।
জানালার ফাঁকে বৃষ্টির জল অাছড়ে পড়ে ঝনঝন,
তার ছাঁটে পবিত্র হয়ে ওঠে তোমার লজ্জা ভাঙার ক্ষণ।

ভয় ভাংতে বাকি তবু, বাকি মেয়ে নিষিদ্ধ উন্মোচন,
বাকি করতে পান তৃষ্ণার মধু, খুলতে ভীরু লোচন।
সর্বস্ব উজার করে তবু অামি কাম অাগুনে ঢালি জল,
অবাক তাকিয়ে দেখি, অপ্সরী, তোমারও চোখে অশ্রু টলমল।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • আবু আরিছ
    আবু আরিছ কেয়া বাত! সিনেমাটিক দৃশ্য মনে হচ্ছে, যেমনটা আমরা দেখি, ক্যামেরা রোলিং - বাসর ঘর- বিদ্যুৎ চমক-বাসর ঘর। লজ্জা ভাঙতে থাকেন ভাই...
    প্রত্যুত্তর . ৩ ডিসেম্বর
  •  মাইনুল ইসলাম  আলিফ
    মাইনুল ইসলাম আলিফ ভাল লিখেছেন,কিন্তু সুরসুরি জাগানিয়া কিছু না লিখাই বোধ হয় ভাল।এটা একান্তই আমার নিজস্ব অভিমত।ভাল থাকবেন।
    প্রত্যুত্তর . ৩ ডিসেম্বর

advertisement