মান অভিমানের কৃপণতা...
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১২ সেপ্টেম্বর ১৯৭৯
গল্প/কবিতা: ৪টি

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - কৃপণতা (নভেম্বর ২০১৮)

গুডবাই রঙ পেন্সিল
কৃপণতা

সংখ্যা

নাহিদ জাকী

comment ১০  favorite ০  import_contacts ১০৫
দিলের ক্যানভাসে সব রঙ ছেনে কৃপণতা করতে নেই।
ছড়ানো অনুভবের রঙ পেন্সিল কেড়ে নিলে ঝিঁঝিঁ চেঁচাবেই।

মাধ্যাকর্ষ ঢের জেনেছো, অশ্রু শিশির ভিজাবে শুধু মাটি।
পাটিগণিতের কৃপণতা ঢুকিয়ো না জীবনের ছোট্ট জেবে;
তৈলাক্ত বাঁশ থেকে যদি ছিটকায় সাচ্চা আবেগের চৌবাচ্চা!

অথচ দেখো পেছনের নিবিষ্ট দিনগুলি : গাছের নাভির কাছে
কী টসটসে জামরুল আর ছায়ার অন্ধকারে মিশে তাবৎ ভুল!
শীতার্ত রাত্রি আর পিরিতি জানে সে কাঁপাকাঁপির মানে।

অফুরান ভুল ফুল বনলো অক্লেশে, পরিযায়ী পাখির পাখনায়
আনলে প্রশ্রয়ের পরাগ; তার বীজ থেকেই তো খামারভরা
দিগ্বিদিক সবুজ আর মনজুড়ে সমবেত টিয়ার উল্লাস।

দুপুর ছোঁয়ার আগেই যদি নুপুর ছিঁড়ো
জেনে নাও : নদী আমি এঁকেছি, গতিপথ তুমি।
অবুঝ ভাঙ্গন থাকলইবা কাছেপিঠে।
ঘন সবুজ যেখানে মাখিয়েছি, পাঁশুটে মৌসুম
আসতেই পারে খেয়ানাও লুটপাটে।

...এভাবে মুখ না ফেরালে বুঝি চলে না!
যখন শেষ চা’য়ে ধুয়া, যখন স্বপ্নেরা বল্গাহীন হরিণ,
যখন দু'চোখের দেউড়িতে অশ্রুরা লাফাতে লাফাতে চড়ুই!

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement