লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১০ অক্টোবর ১৯৯২
গল্প/কবিতা: ৩টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - কোমলতা (এপ্রিল ২০১৮)

বাংলা মায়ের হাসি
কোমলতা

সংখ্যা

মোট ভোট

মুহাম্মদ জে.এইচ (রপ্পি)

comment ৯  favorite ০  import_contacts ৩১১
ঐ যে আমার শীতল গায়ের আকাবাকা
পল্লী মায়ের ছবি,
সবুজের ছায়াতলে ঢেকে গেছে আবছায়া
রৌদ্দুর,
গগন সীমায় উড়ে যাচ্ছে সাদা কালো মেঘ
বাষ্পীয় উত্তাপে বহমান
সমুদ্দুর।
এখানে, নদী আর গহীন বন খেলা করে
ফুল ফুটে আর পাতা ঝরে ,
পাখিরা মুহুতানে গান ধরে
আর রাখালি চড়ায় গরু,
সেখানে নির্জন কোলাহলে, চারপাশটা
চারুলতার তরু।
ঠিক, সেখানে আমার শৈশব পড়ে আছে
এ মলিন মুখের হাসিতে,
দুষ্টুমি আর খেলাধুলার ভঙ্গিমায়
অনন্য এক রাশিতে।
আমি যেখানেই যাই ফিরে ফিরে চাই
কভু তাহার মতন কিছু পাই না,
এ যে আমার পল্লী মায়ের রূপ
তাকে আমি ভুলে যেতে চাই না।
না, ভুলে যেতে চাই না?
আজি বন্ধনা করি যে বাংলা মায়ের
চিত্রায়নের ছবি,
তোমরা কি ভেবেছো বলেছো আমাকে
আমিই বর্তমানের কবি।
আরে আমি নয় কো কবি শীতল ছবি
ঠান্ডায় গা কাঁপুনি,
আমি ধানের শীষে কাঁদন বিষের ছেলে
চিনবে না যে আপনি।
ওরে তোরা স্বপ্ন ধারার কি নাম শুনেছিস
কল্পনার ছড়াছড়ি,
গভীর স্নেহে ডাক দিয়ে আয়, বলি,
কি চিনেছিস, কি জেনেছিস
বাংলা মায়ের রূপটা বরাবরি।
আমি সেই বাংলা মায়ের রূপের বাহার
তোমাদের, কেমনে বুঝাব বল,
শহরের চার দেয়ালের মনটা ছেড়ে
অনন্ত একটি বার।
বাংলা মায়ের পল্লী নিবিড় মায়াতে
শান্তি নীড়ে চলো,
তবেই বুঝবে কাকে বলে আমার
বাংলা মায়ের হাসি ,
আমি সেখানে উপভোগ্য করি জীবন্তিকা সুরে
চেনা বাঁশরীর বাঁশী,
এলেই বুঝবে কাকে বলে আমার
বাংলা মায়ের হাসি।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • সুমন আফ্রী
    সুমন আফ্রী দারুন লিখেছেন। শুভকামনা রইলো আপনার প্রতি... আমার গল্পে আমন্ত্রন আপনাকে...
    প্রত্যুত্তর . ৩ এপ্রিল
  • ম নি র  মো হা ম্ম দ
    ম নি র মো হা ম্ম দ আমি সেই বাংলা মায়ের রূপের বাহার
    তোমাদের, কেমনে বুঝাব বল,
    শহরের চার দেয়ালের মনটা ছেড়ে
    অনন্ত একটি বার। অসাধারণ।। সময় করে আমার কবিতার পাতায় ঘুরে যাবেন।। ভোট ও ভালোবাসা রেখে গেলাম
    প্রত্যুত্তর . ৩ এপ্রিল
  • সাদিক ইসলাম
    সাদিক ইসলাম কবিতাটি বর্ণনাময় হয়ে গেছে। কভু শব্দটি পরিহার করে অন্য শব্দ দিলে ভালো হতো। শুভ কামনা আর ভোট রইলো। কবিতায় আমন্ত্রণ।
    প্রত্যুত্তর . ৬ এপ্রিল
  •  মাইনুল ইসলাম  আলিফ
    মাইনুল ইসলাম আলিফ সুন্দর কবিতা।চালিয়ে যান।শুভ কামনা আর ভোট।আসবেন আমার পাতায়।
    প্রত্যুত্তর . ১০ এপ্রিল
  • মোঃ নুরেআলম সিদ্দিকী
    মোঃ নুরেআলম সিদ্দিকী বাংলা মায়ের পল্লী নিবিড় মায়াতে
    শান্তি নীড়ে চলো,
    তবেই বুঝবে কাকে বলে আমার
    বাংলা মায়ের হাসি ,
    আমি সেখানে উপভোগ্য করি জীবন্তিকা সুরে
    চেনা বাঁশরীর বাঁশী,
    এলেই বুঝবে কাকে বলে আমার
    বাংলা মায়ের হাসি। অনেক ভালো লাগলো কবি। শুভকামনা রইল
    প্রত্যুত্তর . ১৩ এপ্রিল
  • মামুনুর রশীদ ভূঁইয়া
    মামুনুর রশীদ ভূঁইয়া ভালো লাগল কবিতাটি। আরো লিখবেন। ভোট রইল। আসবেন আমার কবিতার পাতায়।
    প্রত্যুত্তর . ১৪ এপ্রিল
  • মনজুরুল  ইসলাম
    মনজুরুল ইসলাম sundor vabna. majhe moddhe chondo poton ghotece.lekha chalie jaben ai prottasa. vote roilo.amar golpe amontron.
    প্রত্যুত্তর . ১৫ এপ্রিল
  • কাজল
    কাজল অনেক সুন্দর একটি কবিতা। আমার কবিতা পড়ার আমন্ত্রন।
    প্রত্যুত্তর . ১৮ এপ্রিল
  • ওয়াহিদ  মামুন লাভলু
    ওয়াহিদ মামুন লাভলু সত্যিই, যেখানেই যাওয়া যাক না কেন, পল্লী মায়ের রূপের মতন আর কিছুই পাওয়া যায় না। পল্লী মায়ের রূপকে ভুলে যেতে না চাওয়াটা খুবই সুন্দর ও প্রশংসনীয়। অনেক ভাল লাগল। আমার শ্রদ্ধা গ্রহণ করবেন। আপনার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইলো। ভাল থাকবেন।
    প্রত্যুত্তর . ১৯ এপ্রিল
  • কাজী জাহাঙ্গীর
    কাজী জাহাঙ্গীর ভাবনাটা বেশ, কিনতু বাক্য গঠনে দুর্বলাতা প্রকট। সাধু চলিত মিশ্রণ ও আছে। তবু চেষ্টাকে সাধুবাদ জানাই। অনেক শুভা কামনা, ভোট আর আমন্ত্রণ রইল
    প্রত্যুত্তর . ২২ এপ্রিল

advertisement