রোদেলা দুপুরে ক্লান্তি কাটে রেশ
হে ধরনী তুমি সেজেছোতো বেশ!
আরও কত রঙ্গীন সুবর্ণ সৌন্দয্য
বিরল বহুল্য আছে রুপ।
জানার নেই মোর কোন সাধ্য
তুমি কেন জালালে মোর অন্তরে ধূপ।।
বৈশাখী হাওয়া অপরুপ চেহারা
আ নগর-নগরীর বাহনা।
কত রোদেলা দুপুরে লেগেছে ক্ষরা
যৌবনে বৈশাখী রোদ এখনও ধরা
আসে নাই ফাগুন হায়,
দেখিতে কি অপরুপ মনে হয়!
জ্যোৎসনার আলো নহে সে নয়,
নিদারুনে শাহিত নাই কোন ভয় নয়।।
দিপ্ত শিখা ঘাষফড়িং এর চরে
মেঘ জমেছে ঘন-ঘন চরন তার পাশ্বে।
হাওয়া গেলেছে রোদেলা দুপুরে রমনী
একোন নিরবোধ, নরপশু তুমি জাননী।
বাহারী শুখ হাওয়া দোলে
দেখিয়া তোমার অঙ্গ টোলে
এতো কোন বনহংস
নিঃষেশ করিবে তোমার সঙ্গ ভোগে!!
রোদেলা দুপুরে ক্লান্তি কাটে রেশ
তুমি এসেছো রমনী ভাল হয়েছে বেশ