কৃপণ মানুষ সারা জীবন অন্যেরটা আশা করে,পেতে চায়,পায়ও।কিন্তু নিজের টা খরচ করার বেলায় তার আসল রুপ ফুটে ওঠে।পাওয়া ও দেওয়ার মাঝের এই পার্থক্যের চরিত্রই ফুটে উঠেছে কবিতায়।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ১২ অক্টোবর ১৯৯২
গল্প/কবিতা: ২৭টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৪৮

বিচারক স্কোরঃ ২.৪৫ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ২.০৩ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - কৃপণতা (নভেম্বর ২০১৮)

নেশাতুরা
কৃপণতা

সংখ্যা

মোট ভোট ২৭ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৪৮

নাজমুল হুসাইন

comment ২১  favorite ০  import_contacts ৩৬৬
তোমার আয়েশী ঢঙের খায়েশ,
লীলাবতীর নীল পদ্মের ঘ্রাণের নেশা,
দ্বিধাহীন পূরণ করেছি,তাজা রক্তের রঙ মূল্যে।
ধূণিত পশম উড়েছে,তুমিও উড়েছো-
দিক-বিদিক শুন্য গন্তব্যহীন লালসার পিছু পিছু।
অঙ্গনের মাধবী লতার ক্ষীন চাহনির অন্তরালে,
লুকিয়ে রয়েছ না জানি কত কাল।
কিছু না দিয়েই হয়েছ নিঃশেষ,
অথচ সব দিয়েছি বলেই আজ আমি পরিপূর্ন,
টয়টম্বুর রসের কলস।
কিছু পাবার আশায় গোলা ভরা চিটা ধান,
তোমায় ধরেছে মেঠো ইঁদুরের নেশা।
নেশাতুরা,তবু হেসে যাও রক্ত রাঙা চোখে।
খুন হব বলে ছুরি তলে,ছুতো খুজি জিজ্ঞাসার,
ঢং মেখে নিয়ে যাও সব,দাওনা কিছুই-
এ তোমার কেমন কৃপণতা?

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement