স্বাধীনতা তুমি
অঝর বৃষ্টি ঝড় ঝড় মুখরিত চারদিক।
স্বাধীনতা তুমি
নব বধূর লাজকীয় ঘোমটা
তুমি অন্ধকার ঘুচিয়ে আলোকের ঘণ্টা।
স্বাধীনতা তুমি
অন্ধকার প্রভাতের আলোকিত সূর্য।
স্বাধীনতা তুমি
নজরুলের বিদ্রোহী ডাক।
স্বাধীনতা তুমি
গর্ভিত মায়ের কাঙ্ক্ষিত সন্তান।
স্বাধীনতা তুমি
ছোট্টর শিশুর অস্পষ্ট মুখের ভাষা,
তুমি গ্রাম্য কৃষকের সোনালী ধান চাষা।
স্বাধীনতা তুমি
জাহানারা ইমামের মহান আত্মত্যাগ,
তুমি রবী ঠাকুরের খেয়ালী মনের ভাব।
স্বাধীনতা তুমি
জসিমউদ্দিনের নকশি কাঁথার মাঠ,
তুমি বীর শ্রেষ্ঠের বীরত্বের অধিকার।
স্বাধীনতা তুমি
লক্ষ শহীদের তারুণ্যের প্রতীক।
স্বাধীনতা তুমি
নীরব প্রকৃতি স্তব্ধ আকাশ,
তুমি হঠাৎ আকাশ নিঃসৃত বজ্র প্রকৃতি বায়ুশ্মান।
স্বাধীনতা তুমি
অথই পানির উত্তাল গর্জন,
তুমি মায়ের আচলে সুপ্ত মায়ার বন্ধন।
স্বাধীনতা তুমি
দক্ষিণা বাতাসের শা-শা গর্জন,
তুমি বাংলার চির গর্ভিত অর্জন।