একদা ভালোবাসায় জড়িয়ে থাকা দাম্পত্যে ঢুকে পড়েছে অসুস্থ পরকীয়া, অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো অনাহুত। সেই অপরাধের দায়ভারে অনুতপ্ত হৃদয় প্রতিনিয়ত ক্ষমার আশায় দিন গোনে। তবু লজ্জার জাল কেটে উচ্চারিত হয় না ভালোবাসার উষ্ণ কথামালা। আবদ্ধ হওয়া হয়ে ওঠে না আকাঙ্ক্ষিত বন্ধনের মায়াডোরে। অপরাধের দহনে দগ্ধীভূত হয় মন। পাপিষ্ঠ হৃদয়ের সীমাহীন লজ্জাই পাহাড়সম বাধা হয়ে বার বার পথ আটকে দাঁড়ায়।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৩ নভেম্বর ১৯৭৫
গল্প/কবিতা: ৬৪টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৮৬

বিচারক স্কোরঃ ২.৮২ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ২.০৪ / ৩.০

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - লাজ (জুন ২০১৮)

লুণ্ঠিত হৃদয়জমিন
লাজ

সংখ্যা

মোট ভোট ৩৪ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৮৬

ফাহমিদা বারী

comment ১৩  favorite ০  import_contacts ৬৪৯
এক মুঠো শিউলী গুঁজে রেখেছি তোমার পাটভাঙা শাড়ির ভাঁজে...
বিছানাতে আলগোছে সাজিয়ে রেখেছো,
এখনি বুঝি কাক ডুব সেরে জড়িয়ে নেবে গায়ে।
আমি অপেক্ষার প্রহর গুনে চলেছি...
সারাদিনমান এ কাজ সে কাজ,
শত কাজের বাহানায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছো সারা ঘরময়।
সবটুকুই কি কাজের খাতিরে?
নাকি নিছকই আমাকে বুঝিয়ে দেওয়া
ঐ ফুলের ঘ্রাণ নিতেও আজ ঘৃণা বোধ কর তুমি!
একদিন যে নৈবেদ্যের আশায় কাটিয়ে দিতে বিনিদ্র রজনী
আজ একটুখানি দৃষ্টি দিতেও এতটা তীব্র দহন?
অপরাধের ভারি বোধে জবুথবু আমি
কুঁকড়ে থাকি সীমাহীন দ্বিধায়... অপরিমেয় লজ্জায়।
সেই সঙ্কোচের পাহাড় ডিঙিয়ে প্রকাশিত হয় না আমার সাহসী উচ্চারণ,
বলিষ্ঠ দীপ্যমান পৌরুষ!
মুখ ফিরিয়ে সরে যাও তুমি...
শুকোতে না পারা ক্ষতের দাহে আজো দগ্ধ তোমার কমনীয় নারীত্ব,
আমার লজ্জা তাতে ছড়িয়ে দেয় উদগিরিত লাভা।
কত শত ব্যস্ততায় গা এলিয়ে পড়ে থাকে অবহেলিত শিউলী!
ভাঁজের অবগুণ্ঠন খুলে জড়াতে পারে না তারা
চম্পককলির মতো ঐ দু’খানা কোমল করিডোরে।
আমিও চকিতে চোরা দৃষ্টি ফেরাতে ফেরাতে ভাবি
কতদিন হারাই না সেই কামনার বাহুপাশে!
ভালোবাসায় জড়াজড়ি দিনগুলোতে
আকণ্ঠ ডুব দিয়েও আজ চাতকের মতোই পিপাসার্ত আমি...
আরেকটি বার নজরবন্দি হতে ইচ্ছে করে
কোনো এক মায়াবতীর কোমল আঙ্গিনায়।
একদা সেইখানে বসত ছিল আমার;
ইঞ্চি ইঞ্চি জমি চষে বুনে দিয়েছি বীজ, উত্তপ্ত ভালোবাসার।
এতটুকুও জবর দখলের আশঙ্কা ছিল না কোথাও;
অথচ আজ...
চারপাশের আবাদী প্রান্তর ধু ধু ফাঁকা পড়ে থাকে
সেখানে হয় না কোনো জলসিঞ্চন, নতুন কোনো ফসলের আবাদ।
হৃদয়ের ষোল আনা চর বিকিয়ে দিয়েছি অনাহুত দখলদারের জোর তাণ্ডবের কাছে,
বাকি পড়ে আছে যে সামান্য কিছু অংশ
সেটুকুকে আজ লুকিয়ে রাখি পরম লজ্জায়; নিশ্ছিদ্র কুণ্ঠায়।
এই বুকে হেঁটেছে অন্য নারী...
এ ভূমি... আজ তোমার জন্য এতটুকুও নিরাপদ নয়।


advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • মোঃ গালিব মেহেদী খাঁন
    মোঃ গালিব মেহেদী খাঁন জীবন যখন যেমন! বেশ ভাল লাগল।
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ৪ জুন, ২০১৮
  • রাহাত
    রাহাত সুন্দর বুননে লুণ্ঠিত হৃদয়জমিনের হিসেব নিকেশ।
    ভালো লাগলো। অনেক অনেক শুভ কামনা।
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ৪ জুন, ২০১৮
  • তানি হক
    তানি হক Govir abong abegmoy kobitati hridoy chuye gelo... Dhonnobad janai prio apuke
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ৪ জুন, ২০১৮
    • ফাহমিদা বারী এই ভয়টাই পাই আমি! যাতে কবি তানি হক, পান্না ভাই, আর পণ্ডিত মাহি ভাইদের চোখে এসব ছাইপাঁশ কবিতা না পড়ে! এসব এক্সপেরিমেণ্টাল লেখা। কবিতাকে গিনিপিগ বানিয়ে কাটাছেড়া করি। ;)
      প্রত্যুত্তর . thumb_up . ৪ জুন, ২০১৮
  • শরীফ মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান
    শরীফ মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান সুন্দর কবিতা।ভোট দিলাম।
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ৪ জুন, ২০১৮
  •  মাইনুল ইসলাম  আলিফ
    মাইনুল ইসলাম আলিফ আপুতো গল্পকার,এতো নিখুত কবিতাও যে গল্পকার আপু লিখতে পারে সেটা আবারো জেনে গেলাম।অসধারণ, অসাধারণ।শুভ কামনা আর ভোট রইল।আপু এ সংখ্যায় কিন্তু কবিতার পাশাপাশি আমার আনকোরা হাতের একটা গল্পও আছে।আপনার পরামর্শের অপেক্ষায় রইলাম।
    প্রত্যুত্তর . thumb_up . ৪ জুন, ২০১৮
    • ফাহমিদা বারী অনেক ধন্যবাদ তোমাকে। :) পড়বো ইনশাল্লাহ। এই সংখ্যাতে গল্প কবিতার সংখ্যা কম। ভালো কিছু লেখাও চোখেও পড়ছে। সময় নিয়ে সবগুলোই ধীরে ধীরে পড়ে ফেলার ইচ্ছে আছে।
      প্রত্যুত্তর . ৫ জুন, ২০১৮
  • Shamima Sultana
    Shamima Sultana নবীন এই কবি কি আর বলব, আমি মন্তব্যের ভাষা খুঁজছি । কত যে তৃপ্তি পেলাম পাঠে বিজ্ঞ বন্ধুদের মতামতই যথেষ্ট। ভোট দিয়ে গেলাম। অনুগ্রহ করে আমার পাতা ঘুরে দেখবেন উপদেশ পাব আশা করি।
    প্রত্যুত্তর . ৬ জুন, ২০১৮
  • ম পানা উল্যাহ্
    ম পানা উল্যাহ্ নিরাপত্তা রক্ষায় চাদরে ঢেকে দেবো তোমার অমলিন বসন। আস্থা রাখো নিয়ত বিশ্বাসে, পরম বন্ধুত্বে ।
    প্রত্যুত্তর . ৮ জুন, ২০১৮
  • মোঃ জামশেদুল আলম
    মোঃ জামশেদুল আলম আমি পাপ পুণ্য তেমন বুঝি না। লালন বলেছিলেন, "পাপ পুণ্যের কথা আমি কারে বা শুধাই? এক দেশে যা পাপ গণ্য, অন্য দেশে পুণ্য তাই।" কবির কাজ আমার মতে কল্পনা তুলে দেয়া। পাঠক কিভাবে নেবে সেটা তাদের কল্পনার বিকাশের উপর নির্ভর করবে।
    প্রত্যুত্তর . ১০ জুন, ২০১৮
    • ফাহমিদা বারী কবির কাজ কি শুধু তাই? আমি তো বিষয়টাকে অন্যভাবেই চিন্তা করি। কবিতা পড়ার জন্য অশেষ ধন্যবাদ। :)
      প্রত্যুত্তর . ১০ জুন, ২০১৮
  • সেলিনা ইসলাম
    সেলিনা ইসলাম 'হৃদয়ের ষোল আনা চর বিকিয়ে দিয়েছি অনাহুত দখলদারের জোর তাণ্ডবের কাছে,
    বাকি পড়ে আছে যে সামান্য কিছু অংশ
    সেটুকুকে আজ লুকিয়ে রাখি পরম লজ্জায়; নিশ্ছিদ্র কুণ্ঠায়।" অসাধারণ! গভীর অনুভূতির প্রকাশ কবিতায়! শুভকামনা নিরন্তর।
    প্রত্যুত্তর . ২৫ জুন, ২০১৮
  • ওয়াহিদ  মামুন লাভলু
    ওয়াহিদ মামুন লাভলু আজ একটুখানি দৃষ্টি দিতেও তীব্র দহন? এমনটি হলে অপরাধ বোধের জ্বালায় দগ্ধ হওয়াটাই স্বাভাবিক। ফুলের ঘ্রাণ নিতে ঘৃণা বোধ করলে সেটা সত্যিই দ্বিধা ও লজ্জার জন্ম দিতে পারে। ম্যাডাম, খুবই ভাল লাগলো আপনার কবিতাটি। আমার শ্রদ্ধা গ্রহণ করবেন। আপনার জন্য অনেক অনেক শুভক...  আরও দেখুন
    প্রত্যুত্তর . ২৫ জুন, ২০১৮

advertisement