মাঝে মাঝে প্রকৃতি সবকিছু কেড়ে নেয়।ঘরবাড়ি,প্রিয়জন কেউ রেহাই পায় না তার থেকে।ঝড় এলে মনের মাঝে যে ভয়টা থাকে তা তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।
-লেখার সাথে বিষয়ের সামঞ্জস্যতা ব্যাখ্যায় লেখকের বক্তব্য

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৭ আগস্ট ১৯৯৪
গল্প/কবিতা: ৪৪টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

keyboard_arrow_leftকবিতা - ঝড় (এপ্রিল ২০১৯)

সর্বনাশা ঝড়
ঝড়

সংখ্যা

মোট ভোট

গোবিন্দ বীন

comment ১  favorite ০  import_contacts ১৩৩
ধীরে ধীরে বাতাস বয়ে যায়,
চারিদিক কেঁপে উঠে পবনের স্রোতে,
গাছের পাতারা পারে না থেমে থাকতে,
কুণ্ডলী পাকিয়ে নেমে আসে প্রচন্ড ঝড়।
দৌড়ে গিয়ে আটকে দেই দরজার খিল,
জানালার বাইরে তেড়ে আসে অবিরাম বাতাস,
নিভু নিভু করে জ্বলন্ত প্রদীপের শিখাটা,
দু হাতে আটকে রাখি যেন নিভে না যায়।
আকাশে মেঘের গর্জন বারবার হুংকার দিয়ে,
চমকে ওঠে সাদা আলোর ক্ষনিকের ঝলকানি,
বেড়ে যায় একটু একটু করে বাতাসের জোর,
ছোট্ট হাতের বাঁধা মানে না সর্বনাশা ঝড়।
শিখার সলতেটা পুড়ে পুড়ে শেষ হয়,
তেলটাও ফুরিয়ে যায় একটু একটু করে,
ভাঙা বেড়ার ফাঁক দিয়ে উঁকি দিই,
যদি থেমে যেত অবিরাম বাতাসের বেগ।
শিখা ছেড়ে দিয়ে বিধাতার কাছে দু হাত বাড়াই,
কেড়ে নিও না এক চিমটি আলো,
নয়তো আঁধারের মাঝেই বিলীন হবে,
স্বপ্নে সাজানো আমার ভাঙা কুঁড়েঘর ।

advertisement

আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন

advertisement