অর্থের দেনা-পাওনার হিসেবটা মিলে খুব সহজেই,
অঙ্কের মাপে মিটিয়ে মুছে ফেলা যায়।
সাদা কাগজের খাতায় লিখে যোগ-বিয়োগ,
ইতি টানে দেনা পাওনার সর্ম্পক।
দশ মাস দশ দিন গর্ভে ধারণ করে, সহ্য করে যায় অসহ্য প্রসব যন্ত্রণা,
দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসানে কোল জুড়ে আসে,
হৃদয়ের শূন্য জায়গাটা খুশিতে ভরিয়ে দেয়।
নিজের সুখ বিসর্জন দিয়ে দিন-রাত্রি তার খেয়ালে,
হাতের আঙুল ধরে হাঁটতে শেখায়, চাঁদ মামার গল্প শুনিয়ে ক্ষুধার জ্বালা মেটায়,
ঘুম পাড়ানি গানে ঘুমের মাসীকে ডেকে নিয়ে আসে।
অসুখ বিসুখে সারারাত পাশে বসে, হাত বুলিয়ে কপালে অসহ্য যন্ত্রণা আপন করে নেয়,
নিজের ভাগের অন্ন সন্তানের মুখে তুলে,
হাসিমুখে ভুলে যায় উপোস থাকার কষ্টটা।
কোন কিছুর দামে মিটবে না মায়ের ঋণ,
হোক সে যতই দামী অর্থকড়ি ধন সম্পদ,
জন্মের ঋণের কাছে সেসব অর্থহীন, মায়ের দুধের ঋণের কাছে মূল্যহীন।