উদাসীন বেদনার স্নিগ্ধজলে ভাসে আমার সারাটি রাত্রি
স্বপ্নের চোখে অনিদ্রা লিখি আমি-
একবুক আশা নিয়ে,একবুক বালুভুমি নিয়ে।

তোমাকে খুজতে গেছে নিদ্রাহীন চোখের তীক্ষ্ণতা,
খুজতে গেছে স্বপ্নপোড়া এই মানবিক হৃদয়।
কিন্তু তুমি নেই কোথায় নেই,নেই তোমার ছায়া,নেই তোমার ঘ্রাণ;
শুধু পড়ে আছে দু চারটে গোপন চুম্বনে গাথা পুরোনো প্রেমের স্মৃতি।
শুধু পড়ে আছে নগ্ন অন্ধকারে ভাসমান বিষণ্ণ হৃদয়-
সব আছে এখন,শুধু তুমি নেই।

তুমি নেই তাই –নিষ্প্রদীপ মহড়ায়-
জ্বলতে থাকে পাথরের মত ঠান্ডা চোখ,
জ্বলতে থাকে ভালোবাসা,নক্ষত্রের আলোকিত স্মৃতি,
জ্বলতে থাকে সুখ অসুখের স্বপ্ন,
জ্বলতে থাকে হিরা চূনী পান্নার মতো তোমার দেয়া দুঃখ,
শুধু তুমিই এখন থাকোনা।

শুধু তুমি থাকোনা, তুমি নেই,
ডানে-বায়ে,পূর্ব-পশ্চিমে কোথায় নেই তুমি
অসভ্যের মত ফাঁকা হৃদয়টাতেও নেই তুমি।