বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।
Photo
জন্মদিন: ২৯ নভেম্বর ১৯৯০

লেখক সাক্ষাৎকার-৩: আহমাদ মুকুল, বই- বেশরম কাউয়ার গতর

  • advertisement

    ইফতেখারুল ইসলাম: মুকুল ভাই, কেমন আছেন?

    আহমাদ মুকুল: ভালো।

    ইফতেখারুল ইসলাম: বইয়ের নাম "বেশরম কাউয়ার গতর", জানতে চাইব কে সেই বেশরম কাউয়া যে গতর দেখিয়ে গ্ল্যামার প্রদর্শন করছে?

    আহমাদ মুকুল: নির্মলেন্দু গুণের কবিতা থেকে শব্দ ক’টি নেওয়া... বন্ধু লেখক মৃন্ময় মিজানের সুপারিশে নামকরণ। লেখালেখিতে বুধে বুধে আষ্ট (আট) দিনও হয় নাই, একটা বই ছাপাইয়া ফেলা... প্রথম বেশরম কে- চিন্না লও!

    ইফতেখারুল ইসলাম:  “বুধে বুধে আষ্ট দিন”- ব্যাপারটা একটু ব্যাখ্যা করুন।

    আহমাদ মুকুল: এটা একটা গ্রাম্য প্রবাদ। অপরিপক্ব উদ্যোগ অর্থে বলা।

    ইফতেখারুল ইসলাম: বুঝলাম। 

    এবার বলুন- প্রথম বই, অনুভূতি কেমন?

    আহমাদ মুকুল: এটা বলা কঠিন... শুধু এটা নিয়েই একটা লেখা লিখব। ব্লকে আছি। ব্লক কাটলে ওটাই হবে আমার প্রথম লেখা... Comeback writing.

    ইফতেখারুল ইসলাম: ব্লকে আছেন? তবেই সেরেছে!

    আহমাদ মুকুল: হুম, চল্লিশ বছর ব্লকেই ছিলাম। মাঝে কিছুদিন মুক্ত ছিলাম। এখন আবার!

    ইফতেখারুল ইসলাম: চল্লিশ বছর ব্লকে ছিলেন! (চক্ষু চড়কগাছ)

    আহমাদ মুকুল: আমি আজন্ম লেখক। একটাই সমস্যা- ব্লকে থাকি।

    ইফতেখারুল ইসলাম: চল্লিশ বছর পর লেখালেখির শুরু! অনুপ্রেরণা কী?

    আহমাদ মুকুল:  তালগোল পাকানো শব্দগুলো যখন সেজে যাওয়া শুরু করল, তখনই ভাবলাম- Lets start! ভাবনার উপযুক্ত বাক্য পেলেই লেখক, সাথে ছন্দটা যোগ করতে পারলে কবি।

    ইফতেখারুল ইসলাম: বেশ!

    আপনার লেখা সম্পর্কে ভাবীর অভিমত?

    আহমাদ মুকুল:  উনি খুব পজিটিভ... জামাইয়ের বই প্রকাশিত হয়েছে, এটা বউয়ের জন্য তো গর্বেরই। তবে সে সুখি যে মাসে তো একটা বের হয় না... শান্তি- বছরে মাত্র একটি!

    একটা মজার ব্যাপার হলো সে আমার সিরিয়াস লেখা পছন্দ করে। এটার মানে আমি ধরে নিয়েছি- আমার রম্যই বেটার। (সে আমাকে সবসময় উল্টোটি বলে)

    ইফতেখারুল ইসলাম: ব্যাপারটা বেশ মজার তো!

    আহমাদ মুকুল: Wait wait...

    আমি মনে হয় বেশি কথা বলে ফেলছি... একজন লেখক মনে হয় সাক্ষাৎকারে এত কথা বলেন না... একটু সংযমী হয়ে গেলাম।

    ইফতেখারুল ইসলাম: lol

    আচ্ছা, তাহলে এবার একটি কঠিন প্রশ্ন করি- একজন লেখকের জীবনে সহধর্মিণীর সহযোগিতা কতখানি গুরুত্বপূর্ণ? (আমি আজকাল লেখক বড় ভাই পাইলেই এইসব ঘর-সংসার সংক্রান্ত প্রশ্ন বেশি করি)

    আহমাদ মুকুল: তোমার যেমন বোঝাহীন জীবন, সঙ্গতিহীন সময়... আমার তেমনই বোঝাময় জীবন, সঙ্গতিপূর্ণ সময়। শূন্যতা বা পূর্ণতা- কোনটি ভালো খোদা-ই জানেন!

    ইফতেখারুল ইসলাম: মুচকি মুচকি হাসি।

    লেখক জীবনের কোনও অপূর্ণতা?

    আহমাদ মুকুল:  আছে... অনেক স্বপ্ন আছে। ভয় হয়- স্বপ্ন পূরণের চেষ্টা না করেই না হারিয়ে যাই!

    ইফতেখারুল ইসলাম: যদি একটু বিস্তারিত বলতেন...

    আহমাদ মুকুল:  যখন চেষ্টা করেছি তখন সব হয়েছে। সাই-ফাই হয়েছে, রম্য হয়েছে... এখন চেষ্টা নেই। ঠিক বুঝাতে পারব না। বড় একটা অপূর্ণতা মনে পড়ছে- অনেক চরিত্রের সমাহার ঘটাতে পারিনি। আমার লেখাতে চরিত্র কম থাকে, তাই পরিসরটি প্রায়ই ছোট হয়ে যায়।

    ইফতেখারুল ইসলাম: এবার আবার বইয়ের প্রসঙ্গে ফিরি। “বেশরম কাউয়ার গতর” সম্পর্কে আপনার অভিমত জানতে চাই।

    আহমাদ মুকুল:  বেশ কিছু উচ্চারণ আছে- খুবই শক্তিশালী, কথা খুব কম হয়েছে ওগুলো নিয়ে। কিছু খুবই সাধারণ- অতি উচ্চারিত বিষয়।

    ইফতেখারুল ইসলাম: লেখালেখি এবং বইয়ের বাইরে এবার সম্পূর্ণ ভিন্ন কিছু প্রসঙ্গ নিয়ে জানতে চাইব।

    আহমাদ মুকুল:  হুম।

    ইফতেখারুল ইসলাম: পরিস্থিতির ভিন্নতায় আপনি নিজেকে অপরিবর্তিত রাখেন কীভাবে, অথবা প্রশ্নটা যদি একটু অন্যভাবে করি- সংকটকালে কিংবা জটিল পরিস্থিতিতে আপনি নিজের ব্যক্তিত্বটা কীভাবে ধরে রাখেন, যেটা হয়ত আমরা অনেকেই পারি না?

    আহমাদ মুকুল:  প্রথম কথা- পরিস্থিতির ভিন্নতায় কখনোই অপরিবর্তিত থাকি না। শুধু খোলসটা আগের মতো ধরে রাখতে বাধ্য হই, এটাকে কৌশলী হওয়াও বলতে পারো। বহিরাঙ্গনে এটা যত বেশি করতে হয়... অন্তরাঙ্গনে তত বেশি জখমগ্রস্থ হই। যার ফল এখন ভোগ করছি।

    ইফতেখারুল ইসলাম: আমার দেখা আদর্শ পরিবারগুলোর মধ্যে আপনার পরিবারটি অন্যতম। একটি আদর্শ পরিবার গঠনে কী কী বিষয় ভূমিকা রাখে বলে আপনি মনে করেন?

    আহমাদ মুকুল: কর্তা বা লিডার যখন তার পরিবারের সবার জন্য আদর্শ হতে পারেন। আমি আমার ছেলে এবং মেয়ের জন্য আদর্শ হতে চেষ্টা করি। কিন্তু... আরও অনেক পরিবারে সেটি করতে গিয়ে বোধহয় পেরে উঠিনি।

    ইফতেখারুল ইসলাম: প্রায় সব লেখকের জীবনেই একটা যন্ত্রণার জায়গা থাকে, যা তাকে লেখক করে তোলে। আমি অনেক খুঁজেছি, আপনার যন্ত্রণার জায়গাটা খুঁজে পাইনি। তবে কি ধরে নিব এটাই সেই যন্ত্রণা?

    আহমাদ মুকুল: আমার লেখক জীবনের যন্ত্রণা আমার লেখা গল্প এবং কবিতাতে আছে... অবশ্যই রম্যে নয়।  

    ইফতেখারুল ইসলাম: অনেক ধন্যবাদ মুকুল ভাই।

    আহমাদ মুকুল: ধন্যবাদ তোমাকেও... শুভরাত্রি।

    ইফতেখারুল ইসলাম: শুভ রাত্রি।

     

     

     

    এক নজরে বেশরম কাউয়ার গতর: 

    ১৭ টি স্যাটায়ার গল্পের সংকলন।

    প্রকাশক:

    লোকালপ্রেস

    প্রাপ্তিস্থান:

    ক্রিটিক, লিটল ম্যাগ চত্বর

     

advertisement