মেঘের আড়ালে আকাশ লুকিয়ে
নক্ষত্র গননার হিসেব চেয়েছ!
আমি তো মেঘ অব্দি উঁচু না...প্রভু
ঐ পারে গলা বাড়িয়ে সব নক্ষত্র গুনে শেষে
তোমার কাছে ধন্য হবো? বরং-
তুমি আমাকে- সমুদ্রের মধ্যবর্তী জলের তলে
ভারী একটা পাঁথর বেঁধে তলিয়ে দাও!
আমি নিচের দিকে সমুদ্রের-তলদেশ পাতালপুরীতে
যেতে যেতে ঘুমিয়ে যাবো, অমীমাংসিত অদ্ভুত ঘুমে!
তুমি তো এরকমটাই চাও- অ'ঘটিত মৃত্যু হোক আমার?

নইলে কবেই বেঁচে থাকার একটা মন্ত্র শিখিয়ে দিতে!
কয়েক বাক্যের মুখস্থ মন্ত্র পড়ে
মাটি ফুঁড়ে বেরিয়ে আসবে- লুকায়িত সাত-রাজ্যের ধন!
এতীমরা সব খেয়ে বাঁচুক, দুঃখীদের ঘরে আলো জ্বলুক।
এ-ই তো- এতটুকুই, শুধু এতটুকুই-
আমিও মরণ অব্দি এদের সাথে বাঁচতে চাই।

২২জানুয়ারি১৩ কর্মস্থান।