বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।
Photo
জন্মদিন: ৬ জুন ১৯৮২

keyboard_arrow_leftসাহিত্য ব্লগ

জিলিয়ন দশক (Zillion Decades)

ড. জায়েদ বিন জাকির শাওন

  • advertisement

     


    Awkward sleep tries to become too fade,
    Bantling sense reached from state of dead.
    Cracking sound of cage is impossible to hear,
    Deviates the situation from the core of fear.
    Enshrouded mind now wants to move-
    Feeble strength body has failed to prove.
    Gratify the eyes by opening them to see,
    Horrendous darkness never sets them free.
    Impavid spirit says, is that a spot of light?
    Jolted abruptly after entrapped in the sight.
    Knitting the scattered thread of my dream-
    Leads my voice to speak out with a scream!
    Meaninglessly the blue light starts to expand;
    Nonchalant memory’s craving to hold my hand.
    Occult lines are playing just over my bed,
    Plundering thoughts twisting below its shade.
    Queues of questions obtruding my entity-
    Reckoning past because of future’s charity.
    Suddenly in hollow screen, I see a face-
    Tablature of my love, who got its trace?
    Unison music playing in two separate worlds,
    Venom fate compels us to rusticate our words.
    Weapon of time can never make us apart,
    Xeroxing you, I placed inside of my heart.
    Yet you are glowing like the first morning dew-
    Zillion decades can not abate my love for you.



    অলস ঘুমের মাত্রা হয়ে যাচ্ছে ক্ষীণ,
    নব চেতনা অন্ধকার থেকে পেলো দিন।
    ফাঁটলের তীব্র শব্দে কানে ধরে যায় তালা,
    ভয়ের জগতে ধরিয়ে দিচ্ছে এক জ্বালা।
    আচ্ছন্ন মন এখন পেতে চাইছে মুক্তি,
    দুর্বল কায়া শুনতে চাইছে না কোন যুক্তি!
    চোখের পাতা কিছুতে খুলতে নাহি চায়,
    সুতীব্র আঁধার দৃষ্টিকে ছাড়িতে নাহি দেয়!
    আশান্বিত মন বলে ওঠে, ঐ কি আলোকছটা?
    দৃষ্টিসীমায় যখন তা আনে আশার ঘনঘটা।
    কল্পনার সুতোয় বোনা রয়ে গেছে বিচ্ছিন্ন স্বপ্ন,
    চিৎকার দিলাম কারন আমি যে ছিলাম আত্মমগ্ন!
    অযথাই নীল আলোর প্রখরতা বাড়ছে ধীরে ধীরে,
    স্মৃতির পাতা হামাগুড়ি দিয়ে এসে আমার হাত ধরে!
    রহস্যময় কিছু রেখা আমার শয্যায় উঠলো নড়ে,
    ভেঙ্গে পড়া চিন্তা ক্ষণে ক্ষণে হাজির হয় মুচড়ে!
    কত প্রশ্ন এসে ভিড় করে বিদ্ধ করে আমার অস্তিত্ব,
    অতীতকে জাগিয়ে ছিন্ন করে ভবিষ্যতের আমিত্ব।
    আকস্মিক পর্দার মাঝে আমি দেখলাম সে চেহারা
    আমার ভালবাসার কথিকা! কেউ পায়নি যার দেখা।
    একই সুর বেজে চলেছে দুইটি ভিন্ন জগৎ জুড়ে,
    আমাদের কথা দুর্ভাগ্য আজ দূরে দিয়েছে ছুড়ে।
    সময়ের অপচেষ্টা তোমাকে করতে পারেনি দূর,
    অন্তরে যে আঁকা আছে ছবি, সেটা আমার বন্ধুর!
    প্রথম প্রভাতের শিশিরের মত তোমার আমার আশা,
    জিলিয়ন দশকেও তোমার জন্য কমবে না ভালবাসা।

     

advertisement

  • আহমাদ মুকুল
    আহমাদ মুকুল কবিতা সুন্দর। আচ্ছা, এই কবিতাগুলো গদ্য ছন্দে আনলে আরো ভাল লাগতো না? এনিমেশন এর জবাব নেই।
    প্রত্যুত্তর . ৮ মার্চ, ২০১২
    • ড. জায়েদ বিন জাকির শাওন ভাইয়া এইটা ২০০৭ এ লেখা একটা concrete কবিতা. ইংলিশ তা দেখেন A to Z দিয়ে লাইনগুলা শুরু করা হয়েছে. আর এই কবিতার বিষয়বস্তু মূলত কল্পনা!
      ৮ মার্চ, ২০১২