বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।
Photo
জন্মদিন: ১০ জানুয়ারী ২০১৮

শুভ জন্মদিন দ্য ফাদার অফ 'দ্য গডফাদার' মারিও পুজো

  • advertisement

    http://s3.amazonaws.com/somewherein/assets/images/thumbs/escapistbest_1270300236_20-Mario_Puzo_001.jpgদু'বার একাডেমী পুরষ্কার (অস্কার) জয়ী ইতালীয় বংশোদ্ভুত আমেরিকান লেখক এবং চিত্রনাট্যকার মারিও জিয়ানলুইজি পুজো (Mario Gianluigi Puzo) বিশ্ববিখ্যাত 'মারিও পুজো' নামে। তাঁর উল্লেখযোগ্য সৃষ্টিকর্ম হল মাফিয়াদের নিয়ে তার উপন্যাসগুলো। আর মাফিয়া উপন্যাসগুলোর মধ্যে ১৯৬৯ সালে প্রকাশিত সর্বকালের অন্যতম সেরা উপন্যাস "দ্য গডফাদার" সবচেয়ে আলোড়িত।"দ্য গডফাদার"কে পরবর্তীতে তিনি চলচ্চিত্রে রূপ দেন। ১৯৭২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবিটির পরিচালক ছিলেন ফ্রান্সিস ফোর্ড কপোলা (Francis Ford Coppola) ।ছবিটি তিনটি ক্যাটাগরিতে অস্কার লাভ করে।ছবিটি বর্তমানে আই.এম.ডি.বি. (ইন্টারনেট ম্যুভি ডেটাবেজ) টপ ২৫০ ছবির মধ্যে দর্শকদের প্রদত্ত রেটিংয়ে ১০ এর মধ্যে ৯.১ পেয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে।
    পুজো ১৯২০ সালের ১৫ই অক্টোবর আমেরিকার নিউ ইয়র্ক সিটিতে অভিবাসী এক দরিদ্র নেপোলি পরিবারে জন্ম নেন।সিটি কলেজ অফ নিউ ইয়র্ক থেকে স্নাতক করার পরে তিনি ইউনাইটেড স্টেটস আর্মি এয়ার ফোর্সেস (United States Army Air Forces) এ যোগ দেন এবং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।তার ক্ষীণ দৃষ্টির কারনে তাকে সরাসরি যুদ্ধে অংশগ্রহণ করতে না দিয়ে জার্মানিতে পাবলিক রিলেশান অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।১৯৫০ সালে তার প্রথম ছোট গল্প "দ্য লাস্ট ক্রিসমাস" (The Last Christmas), American Vanguard এ প্রকাশিত হয়।যুদ্ধ শেষে তিনি তার প্রথম বই "দ্য ডার্ক আরেনা" (The Dark Arena) লেখেন যা ১৯৫৫ সালে প্রকাশিত হয়।
    ১৯৫০ থেকে ১৯৬০ এর প্রথমাংশ পর্যন্ত তিনি প্রকাশক 'মার্টিন গুডম্যান' (Martin Goodman) এর ম্যাগাজিন ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিতে লেখক কাম সম্পাদক হিসেবে কাজ করেন।
    তিনি অন্যান্য লেখক যেমন ব্রুস জ্যা (Bruce Jay), ফ্রেডম্যান (Friedman) এদের সাথে মেনস ম্যাগাজিন, পাল্প ম্যাগাজিন, ট্র্যু একশান, এবং সোয়াঙ্ক ম্যাগাজিন গুলোর কোম্পানি লাইনে কাজ করেছিলেন।পুজো, "মারিও ক্লেরি" (Mario Cleri) ছদ্মনামে 'ট্র্যু একশান' ম্যাগাজিনের জন্য "ওয়ার্ল্ড ওয়ার টু এ্যডভেঞ্চার ফিচারস" লেখেন।

    পুজোর সবচেয়ে জননন্দিত সৃষ্টি 'দ্য গডফাদার' প্রথম ১৯৬৯ সালে প্রকাশিত হয়।তিনি পাল্প ম্যাগাজিনে কাজ করার সময়ে মাফিয়া সম্পর্কে বাস্তব ঘটনা দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে "দ্য গডফাদার" রচনা করেন।পরে তিনি প্রখ্যাত টেলিভিশান এবং রেডিও উপস্থাপক ল্যারি কিং এর সাথে এক ইন্টারভিউতে "দ্য গডফাদার" সম্পর্কে বলেন যে তার প্রধান উদ্দেশ্য ছিল অর্থোপার্জণ।এর আগে তার প্রথম দু'টি বই প্রশংসিত হলেও ব্যবসায়িক সফলতার মুখ দেখেনি।তাই পাঁচ সন্তানের জনক, সরকারি কেরানী পুজো এমন কিছু লেখার জন্য উদগ্রীব ছিলেন যা বিরাট অংশের পাঠকগোষ্ঠীকে আকৃষ্ট করতে সক্ষম হবে।এবং অবশেষে "দ্য গডফাদার" (দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস এর সর্বাধিক বিক্রিত বইয়ের তালিকায় যা দীর্ঘদিন শীর্ষ স্থান দখল করে ছিল)এর মাধ্যমে অভীষ্ট লক্ষ্যে উপনীত হন।পরবর্তীতে তিনি উপন্যাসটিকে চলচ্চিত্রে রূপ দেন।চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেন ফ্রান্সিস ফোর্ড কপোলা। ছবিটি ১১ টি ক্যাটাগরিতে অস্কার মনোনয়ন লাভ করে এবং তিনটিতে জয়ী হয়।পুজো সেরা চিত্রনাট্যকারের পুরষ্কার জেতেন।পরে পুজো এবং কপোলা জুটি গডফাদারের সিক্যুয়েল "দ্য গডফাদার পার্ট টু" এবং " দ্য গডফাদার পার্ট থ্রী" তৈরি করেন।
    এরপরে পুজো ১৯৭৪ সালে "আর্থকোয়েক" ছবির খসড়া স্ক্রীপ্টের কাজ শুরু করেন, কিন্তু তিনি তা শেষ করতে পারেননি "দ্য গডফাদার পার্ট টু"এর জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকার কারনে। পুজো, রিচার্ড ডোনারস এর "সুপারম্যানঃ দ্য ম্যুভি" ছবিটির সহলেখক ছিলেন এবং তিনি "সুপারম্যান টু" এর আসল খসড়ার ও সহলেখক ছিলেন।
    তিনি এছাড়াও ১৯৮২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত "এ টাইম টু ডাই' এবং ১৯৮৪ সালের আরেকটি কপোলা ম্যুভি "দ্য কটন ক্লাব" এরও সহলেখক ছিলেন।পুজো মাফিয়া ট্রায়োলজির
    শেষ বই "ওমের্তা" (এর আগের দুটি 'দ্য গডফাদার' এবং 'দ্য সিসিলিয়ান')এর প্রকাশ দেখে যেতে পারেননি।তার মৃত্যুর আগেই তিনি "ওমের্তা"র পান্ডুলিপি শেষ করেন এবং "দ্য ফ্যামিলি"র অসমাপ্ত পান্ডুলিপি 'কার্লা জিনো' সমাপ্ত করেন।পুজোর মৃত্যুর পর বই দুটি যথাক্রমে ২০০০ এবং ২০০২ খ্রিষ্টাব্দে প্রকাশিত হয়।
    পুজো ১৯৯৯ সালের ২ জুলাই হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান।তার পরিবার এখনও নিউ ইয়র্কে বাস করে।
    মারিও পুজোর সৃষ্টিসমূহ:
    উপন্যাস:
    দ্য ডার্ক আরেনা (The Dark Arena) (১৯৫৫)।
    দ্য ফরচুনেট পিলগ্রিম ( The Fortunate Pilgrim) (১৯৬৫)।
    দ্য রানওয়ে সামার অফ ড্যাভি শ (The Runaway Summer of Davie Shaw) (১৯৬৬)।
    সিক্স গ্রেভস টু মিউনিখ (Six Graves to Munich) (১৯৬৭),[মারিও ক্লেরি ছদ্মনামে লিখেছেন]।
    দ্য গডফাদার (The Godfather) (১৯৬৯)।
    ফুলস ডাই (Fools Die) (১৯৭৮)।
    দ্য সিসিলিয়ান (The Sicilian) (১৯৮৪), ['দ্য গডফাদার' এর সিক্যুয়েল]।
    দ্য ফোর্থ কে (The Fourth K) (১৯৯১)।
    দ্য লাস্ট ডন (The Last Don) (১৯৯৬)।
    ওমের্তা (Omerta) (২০০০) ['দ্য গডফাদার' সিরিজের শেষ উপন্যাস]।
    দ্য ফ্যামিলি (The Family) (২০০২) (কার্লা জিনো কর্তৃক শেষ করা হয়েছে)।

    ননফিকশান:
    দ্য গডফাদার পেপারস এন্ড আদার কনফেশানস (The Godfather Papers and Other Confessions) (১৯৭২)।
    ইনসাইড লাস ভেগাস (Inside Las Vegas) (১৯৭৭)।

    ছোট গল্প:
    দ্য লাস্ট ক্রিসমাস (The Last Christmas) (১৯৫০)

    চিত্রনাট্য:
    দ্য গডফাদার (The Godfather) (১৯৭২)।
    দ্য গডফাদার পার্ট টু (The Godfather Part II) (১৯৭৪)।
    আর্থকোয়েক (Earthquake) (১৯৭৪)।
    সুপারম্যানঃ দ্য ম্যুভি (Superman: The Movie) (১৯৭৮)।
    সুপারম্যান টু (Superman II) (১৯৮০)।
    দ্য গডফাদার পার্ট থ্রী (The Godfather Part III) (১৯৯০)।
    ক্রিস্টোফার কলম্বাসঃ দ্য ডিসকভারি (Christopher Columbus: The Discovery) (১৯৯২)।

advertisement