বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৩০ নভেম্বর ১৯৮২
গল্প/কবিতা: ৪৪টি

সমন্বিত স্কোর

৪.০৪

বিচারক স্কোরঃ ২.২৪ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৮ / ৩.০

শাশ্বত প্রেম উপাখ্যান

ফাল্গুন ফেব্রুয়ারী ২০১৬

বোধের নির্বিষ প্রাচীর

ঘৃনা আগস্ট ২০১৫

গন্ধাবতী

কোমলতা জুলাই ২০১৫

মুক্তির চেতনা (মার্চ ২০১২)

মোট ভোট ৮৪ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.০৪ রাত পোহাবার অপেক্ষায়

জাকিয়া জেসমিন যূথী
comment ৫২  favorite ১  import_contacts ৮৯৭
চল্লিশ বছর আগে নেমেছিলো গভীর অমানিষা!
সেই অমানিষা কাটাবে বলে একদল যুবক নেমেছিলো পথে
নিজের হাতে গড়া ঘর-বাড়ি, বাবা-মা, প্রিয়তমাকে ছেড়ে;
অজানার পথে। পারবে কি পারবেনা অমানিষা কাটাতে
ভেবে দেখেনি তারা। ভাবার সময় ছিলো না!
শুধু দেশকে দেখেছিলো মায়ের আদলে,
চেয়েছিলো আনবে মুক্তি, কাটাবে অমানিষা,
আলোয় আলোকিত করবে দশ দিক!

হায়! তাদের কি অপরিসীম ত্যাগের বিনিময়ে পাওয়া এই দেশটা!
কি আছে এই দেশের এখন?
চল্লিশ বছর আগে উঠেছিলো ঝড়,
বেঁধেছিলো দু’জাতির সংস্কৃতির লড়াই;
আর আজ স্বাধীনতার সূর্য এলো ঠিকই;
আমরা কি স্বাধীন আজও মনে-প্রাণে বা চেতনায়?

চল্লিশ বছর আগে বেঁধেছিলো দ্বন্দ্ব দুটি ভিন্ন জাতির;
আজ এই বর্তমানে দ্বন্দ্ব, একই জাতিতে, আপন ভাইয়ে ভাইয়ে!
কষ্টে অর্জিত দেশটাকে আমরা ভেঙ্গে ভেঙ্গে টুকরো করছি;
মায়ের মতন দেশটাকে সমৃদ্ধির বদলে খুবলে খুবলে খেয়ে
শক্তিহীন শ্রীহীন করে দিচ্ছি ক্রমশ!

নয় মাস যুদ্ধ করে অপরিসীম ত্যাগ ও তিতিক্ষার জন্ম দিয়েছি,
নোবেল বিজয়ী করে দেশটিকে পরিচিতই শুধু করছিনা;
দূর্নীতি, অন্যায়, অবিচারের বিশাল পাহাড় জমাতে জমাতে,
ক্রশফায়ারের নামে মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলতেও
আর বাঁধছেনা আমাদের। আমরা আমাদের মনুষ্যত্ব হারিয়ে,
ক্রমশ ধুঁকছি এখন! আমরা আসলে মুক্তির স্বাদ হারিয়েছি একেবারেই;
বরং নতুন করে মুক্ত করতে হবে আমাদের এই দেশটাকে সকল অন্যায় থেকে;
মুক্তির চেতনায় জাগ্রত হতে অপেক্ষায় আছি এখনো!
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন