বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
গল্প/কবিতা: ৪৯টি

সমন্বিত স্কোর

৫.৭৬

বিচারক স্কোরঃ ৩.৭৩ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ২.০৩ / ৩.০

ঋণ

ঋণ জুলাই ২০১৭

ভাবমূর্তি

নগ্নতা মে ২০১৭

জলরঙে আঁকা প্রেম

প্রেম ফেব্রুয়ারী ২০১৭

কবিতা - ঐশ্বরিক (মার্চ ২০১৭)

মোট ভোট ২৭ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৫.৭৬ ঐশ্বরিক

লুতফুল বারি পান্না
comment ২৩  favorite ১  import_contacts ৫৯৯
একদিন সব ব্যাকুলতা এসে পুড়িয়ে যাবে আমাদের।
উৎসবমুখর পরিবেশে যেখানে তৈরি হয় খঞ্জর-
সেইসব কামারশালার বাতাসে লেপটে যাবে মৃগনাভি
কস্তূরীর সৌরভ। একদিন সব পাথুরে দোলনা
থেকে হড়কে যাবে পা। পাহাড়ের বুক চিড়ে বেরিয়ে
আসবে এক চপলা নির্ঝরিণী। তার নূপুর নিক্কনে
বেজে উঠবে অশ্রুতপূর্ব ধ্রুপদ। মস্তকে ধ্বংসের বীজ
নিয়ে ছুটে আসা তীর ছুঁতে ছুঁতেও পাশ কাটিয়ে
হারিয়ে যাবে অনন্ত নরকের ঠিকানায়।

সাদা ঘোড়ায় চেপে আসা এক সৌম্য পুরুষের
অপেক্ষায় আছি, তথাগত। তোমরা তাকে যে
নামেই ডাকো। তার হাতের তরবারী জাদুমন্ত্রের মত
গোলাপের পাপড়ি হয়ে যাবে। তার ঘোড়ার খুরে
খুরে তৈরি হবে অফুরন্ত দুগ্ধ-নহর।

বোধিবৃক্ষের নীচে এই যে এলিয়ে আছি শরীর তাকে
কেউ দুর্বলতা ভেবোনা। তোমাদের বিভাজিত
প্রতিটা উপত্যকায় সমাধিস্থ হবে লোভ আর
স্বার্থবোধের মমি। সমস্ত বিভাজন থেকে সে
আমাদের ভিজিয়ে দেবে একই আলোর উৎসবে।

একই ঐশ্বরিক উষ্ণতায়।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন