বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৪ জানুয়ারী ১৯৯৮
গল্প/কবিতা: ২টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

১৩

কবিতা - আঁধার (অক্টোবর ২০১৭)

মোট ভোট ১৩ তমসা ধরণী

মোঃ শাহ আলম
comment ২  favorite ১  import_contacts ৬৫
এই বিশ্ব এই পৃথিবী আজ আঁধারে ভরা,
চারিদিকে শুধু কালো ছায়া।
এই আধাঁরে সঠিক পথ খুজে পাওয়া দায়,
যেন কোন এক দানবের মায়া।
সেতো দানব নহে, এযে মানব রুপি,
গ্রাস করে এই জগত্ ধরা খানি।
যেন ভাবে মনে মনে এ তাহার পিয়াসির খুন পানি।
অসহায় যত মানবের খুন পিয়ে যায় দিবা রাতি,
সে যে মানব রুপি দানব যেন আধাঁরের নিভু বাতি।
এর কেউ মোদের দেশেরই নাম করা কোনো নেতা।
কাজে করে এক,আর মুখে অন্য কথা।
গড়ে কালো টাকার পাহাড়,ছিনিয়ে আনে গরিবের আহার,
করে লালন কালো পশু,মারে অসহায় কত শিশু,
বলে মিথ্যা কথা দাড়াইয়া তথা দেখায় কত ইস্যু।
এযে আঁধারে ভরা জগত্
খুজে বেড়াই একটু খানি অংশু।
সম্মুখে কেউ সহসা আসিয়া,
হস্ত গাড়িয়া নিদ্রা কারিয়া,
উঠাইয়া লয় সুখ শান্তি সভ্য সমাজ খানি।
জানি একদিন হবে পতন সেই আশাতেই দিন গুনি।
টাকার পাহাড় গড়িয়া তুলে কালো বাজারি পশুরা।
ইয়াবা,হেরোয়িন,ড্রাগ পাচারি আঁধারের লাল,বিশুরা।
একটা যুব সমাজকে ধ্বংস করিয়া
গ্রাস করে পুরো দেশটারে,
ধ্বংসের লাভা ছিটিয়ে তারা আনন্দে থাকিতে বেশ পারে।
অগ্নি লাভায় পুরে খাক হায় প্রতিবাদি যেন কেউ নয়,
প্রশাসনও যেন ক্রীতদাস তারা পকেটে কিনা নিয়ে বয়!
তাই বিদ্রোহ করি তাদের প্রতি অস্ত্র তুলি হাতে মোর,
জাগ্রত করি যুব সমার আর আলোর খোজে তুলি সুর।
রবনা পরে সাহারার বুকে হয়ে মোরা মরিচিকা,
বিদ্রোহ মোর ধ্বংসের মম ললাটে খুন টিকা।
পিয়াসুরে আজি পিয়াইয়া গরল যমদূতের হাতে তুলে দিই,
পদতলে মারিব পিষ্ট করিয়া দিলে আছে মোর পন এই।
যত ক্রন্দনরত অসহায়ের আঁখি হয়ে জ্বলে জোয়ালা মুখি,
যেনো এক ফোটা মেঘের জলের আশায় লাখোধিক চাতক পাখি।
আমি বড়ো দুর্দম দুর্মদ কভু নত নাহি করি শির,
মম শির বড়ো উন্নত আমি সৃষ্টির মহা বীর।
শত ঝড়,ঝাপটা,ঝনজা পেরিয়ে অমৃত আনিব খুজি,
রুখবো প্রলয় স্বর্গ গড়িবো পিয়াইয়া অমৃত আজি।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন