বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ২৮ ডিসেম্বর ১৯৯৯
গল্প/কবিতা: ৬টি

সমন্বিত স্কোর

৩.০৬

বিচারক স্কোরঃ ১.২৬ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ১.৮ / ৩.০

জাতির জনক

প্রশ্ন ডিসেম্বর ২০১৭

মুখোশধারী

বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী নভেম্বর ২০১৭

সত্য আজ বহুদূর

আঁধার অক্টোবর ২০১৭

কবিতা - কামনা (আগস্ট ২০১৭)

মোট ভোট ১৫ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৩.০৬ কামনাভরা জগত

Md Kamrul Islam Konok
comment ৯  favorite ৩  import_contacts ২৫৫
মনলোভা রহস্যময়, সবুজ শ্যামলিমা
প্রকৃতিঘেরা এই গ্রাম।
গ্রামের প্রতিটি মৃত্তিকা, প্রতিটি সরষে কণা
প্রতিটি দুর্বা ঘাসে মিশে আছে মোর প্রাণ।
ভ্রমরও জানে আমি ছিলাম, আমি আছি।
কিন্তু জানে বৃদ্ধা, চলে গেছে দুষ্ট ছেলেটি
যে তাকে রাগাত বলতো বিউটি।
কেউ আর খোজ করে না ভাঙ্গা ঘরটিতে,
এখন আর রজনীযাপন করিনা অন্যের বাড়িতে।
বন্ধুরা মিলে রাত্রে আড্ডা মারা,
কখনো বা কারো গাছের ফল চুরি করা
এগুলো এখন শুধুই স্মৃতি,
ছেলেবেলাটা চলে গেছে, হয়ে গেছে ইতি।
আজ আমি কৈশোরে, কামনাভরা অন্তরে
দেখি কত কী!
দু'চোখে মোর যৌন লালসা,
অন্তরটা হয়ে গেছে বিশ্রী।
যে দিকে তাকাই সেদিকে নারী,
চারিদিকে অশ্লীল বাচন ভঙ্গিতে দাড়িয়ে আছে
কতই না সুন্দরী।
মাঝেমাঝে মনে হয়, ধরি তাদের হাত
নেয় তাদের কমলা লেবুর মত ঠোট দুটির স্বাদ।
কিন্ত পারি না, ভয় হয়
আছে যে আইন প্রশাসন,
কবে যে তাদের ভিত্তিহীন শক্ত হাতে করে মোরে শাসন।
এভাবে আর কতদিন চলবে,
আমার কী দোষ সেটা কী বলবে?
যৌবনের অস্থিরতা, চারিদিকে অশ্লীলতা
সুন্দরীদের অসভ্য চালচলন,
দেয় শুধু কামুক ইশারা
তাইতো জগতটা আজ শুধু কামনাভরা।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন
  • এস এম নূরনবী সোহাগ
    এস এম নূরনবী সোহাগ কবিতাটা শেষ ক্রে অন্য জগতে চলে গেলাম। ভোট না দিয়ে উপায় নেই
    প্রত্যুত্তর . ১৩ আগস্ট, ২০১৭
  • গোবিন্দ বীন
    গোবিন্দ বীন মাঝেমাঝে মনে হয়, ধরি তাদের হাত
    নেয় তাদের কমলা লেবুর মত ঠোট দুটির স্বাদ।
    কিন্ত পারি না, ভয় হয়
    আছে যে আইন প্রশাসন,
    কবে যে তাদের ভিত্তিহীন শক্ত হাতে করে মোরে শাসন।
    এভাবে আর কতদিন চলবে,
    আমার কী দোষ সেটা কী বলবে?
    যৌবনের অস্থিরতা, চারিদিকে অশ্লীলতা
    সুন্দরীদের অ...  আরও দেখুন
    প্রত্যুত্তর . ১৪ আগস্ট, ২০১৭
  • মামুনুর রশীদ ভূঁইয়া
    মামুনুর রশীদ ভূঁইয়া ভালো লাগল। ধন্যবাদ
    প্রত্যুত্তর . ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৭