বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৯ মার্চ ১৯৯৭
গল্প/কবিতা: ১টি

প্রাপ্ত পয়েন্ট

গল্প - ঐশ্বরিক (মার্চ ২০১৭)

মোট ভোট "ঐশ্বরিক এক পাপের ইন্দ্রজালে"

ধ্রুবক দ্রোহ
comment ৩  favorite ০  import_contacts ৯৩
আমি মানুষ। আমার চারদিকে এক ঐশ্বরিক ইন্দ্রজালের চোরাবালি যাতে আটকে পড়েছি আমি। লোভ, কাম, মোহ, মদ কত কিছু। আমার স্বজাতীয় মনুষ্য দলের সবাই কি করে পার হলো এই ধাধা, নাকি শুধু আমার জন্যেই এই ধাধার সৃষ্টি, কে এই ধাধার ঈশ্বর, তার ঐশ্বরিক ইন্দ্রজালে আটকে কেন আমি?
এই পৃথিবীর বাকি সবাই কোথায়? সবাই হারিয়ে গেছে নাকি কোনো চাদরে গা ঢাকা দিয়ে আছে? এই প্রশ্নের উত্তর আমায় কে দেবে? এই ইন্দ্রজাল থেকে কি আমার মুক্তি নেই? আমি কে এই প্রশ্ন আমাকে আমার ঈশ্বরের কাছে নিয়ে যাবে নাকি আমাকে ঠেলে দিবে অন্যকোনো চোরাবালিতে। প্রশ্ন করতে করতে ক্লান্ত আমি নিজেকেই ভুলে থাকি যেন।
প্রতিদিন প্রতিমুহূর্ত আশায় থাকি আমার কাছে আসবে এক ঐশ্বরিক বাণী, পথ দেখাবে আমায়। গভীর রাতের আধারে বুকপকেটে জোনাকপোকা হয়ে এই চোরাবালি থেকে নতুন ভোরের দিকে নিয়ে যাবে আমায়।
কিন্তু সেই নতুন ভোর আমায় কি ঠাই দিবে, আমি কি সেই নতুন ভোরের আলোয় উদ্ভাসিত হবার যোগ্য। কি যোগ্যতা আছে আমার ঐশী সেই বাণী ধারণ করার।সেই নতুন ভোরে কি আমার সংগীদের পাবো নাকি আবারো অপরিচিত মানবের ভিড়ে হারিয়ে যাবো।নাকি বাঁধনহীন কোনো বাঁধনে কেউ আমায় বাধবে, আবার আমাকে ছেড়ে কোনো ঐশ্বরিক বাণীতে সাড়া দিয়ে চলে যাবে। আমি আলো ঝলমলে এক মরুভূমিতে নিজেকে আবিষ্কার করবো।
সেই আলোয় কি আমার চোখ ঝলসে যাবে না? আমি এই মানুষটা কি অন্ধকারেরই জীব? মুদ্রার একপিঠের আলো যেমন আমায় হাতছানি দিয়ে ডাকে তেমনই অন্যপিঠের অন্ধকার আমায় আটকে রাখে। বেধে রাখে মোহ আর কামের এই পৃথিবীর সংকীর্ণতায়।

এই সংকীর্ণতা থেকে বাঁধনছেড়ার ঐশ্বরিক গান আমায় কবে শুনাবে হে ঈশ্বর, আর কতকাল এই মৃত্যুভয়েই কামের লালসায় মরে কুকড়ে থাকবো। আর কতাকাল পাপকে ভালোবেসে আজীবন পাপীকে ঘৃণা করার পাপ করে যাবো।

ভালোবাসাহীন জীবনের এই চোরাবালিতে ডুবে মরে কিংবা বদ্ধ খাচার দানাপানি খেয়ে ভালো থাকার ভান করে আর কদিন বেচে থাকবো হে ঈশ্বর।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন