বিজ্ঞপ্তি

এই লেখাটি গল্পকবিতা কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয়।

লেখকের তথ্য

Photo
জন্মদিন: ৩১ ডিসেম্বর ১৯৬০
গল্প/কবিতা: ২২টি

সমন্বিত স্কোর

৪.৮

বিচারক স্কোরঃ ২.৭৮ / ৭.০
পাঠক স্কোরঃ ২.০২ / ৩.০

অযাচিত প্রেম

প্রেম ফেব্রুয়ারী ২০১৭

অধরা স্বপ্ন

কি যেন একটা জানুয়ারী ২০১৭

কাংখিত স্বাধীনতা

ত্যাগ মার্চ ২০১৬

কবিতা - ভয় (সেপ্টেম্বর ২০১৭)

মোট ভোট ৩৭ প্রাপ্ত পয়েন্ট ৪.৮ কবিতা

হাসনা হেনা
comment ২৫  favorite ০  import_contacts ৩০৭
ছোট্র মেয়ে সুষমা ধীরে ধীরে বড় হয়েছে
সেই সাথে বড় হয়েছে তার ভেতরের আজন্ম
ছোট্র ছোট্র বোধেরা, বড় হয়েছে তার স্বপ্ন দেখার
প্রাণবন্ত পৃথিবীর পরিধি।

ষোড়শী সুষমার বাড়ন্ত শরীরে প্রকৃতির রং রূপ
ছড়িয়ে পড়েছে সময়ের হাত ধরে, জাগিয়ে তুলেছে
তার ঘুমন্ত প্রাণ পাড়ি দিতে জীবনের অবারিত পথ,
ছিনিয়ে নিতে আপনার অধিকার।

পুলকিত চোখে কিশোরী মুক্ত আকাশ দেখে বিস্ময়ে,
ছুটে যায় খোলা মাঠে বেণী দুলিয়ে, পাখির সুরে সুর মিলিয়ে
গায় গান, দখিন হাওয়ায় দোলানো পাতার তালে তালে নেচে
বেড়ায় নির্মল আনন্দে, ফুলের হাসি মেখে প্রাণে; হাসে উচ্ছ্বাসে।

সেকি! এতসব সূন্দর, এতসব নির্মল আনন্দে একি বীভৎস ছায়া,
একি নোংরা কালো হাতের নির্লজ্জ থাবা, একি সর্বগ্রাসী
লালসার রক্তাক্ত চোখ, একি বিষাক্ত বিকৃত ভয়াল হাসি।
সুষমার নির্ভেজাল অন্তরে আজ মানুষের ভয়।

প্রকৃতির শত ভয়ের ভিড়ে মানুষকে যেন মানুষের
বড় ভয়, ষোড়শী সুষমার আজন্ম সব অধিকার
বন্দী হয়ে যায় মানুষের বিচিত্র বোধের কারাগারে,
গুমরে গুমরে কাঁদে তার সাজানো স্বপনেরা।
আপনার ভালো লাগা ও মন্দ লাগা জানিয়ে লেখককে অনুপ্রানিত করুন